হোল্ডারদের জার্সিতে ‘ব্ল্যাক লিভস ম্যাটার’

যুক্তরাষ্ট্রে শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসারের নির্যাতনে মৃত্যু ঘটেছে কৃষ্ণাঙ্গ বাস্কেটবল খেলোয়াড় জর্জ ফ্লয়েডের। সেই নির্মম হত্যাকাণ্ডের পর থেকে প্রতিবাদে সোচ্চার ক্রীড়াঙ্গন। ক্যারিবীয় ক্রিকেটাররা তো বর্ণবাদের ক্ষেত্রে নিজেদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরছেন। তবে তারা ‘ব্ল্যাক লিভস ম্যাটার’ আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করলেও সেটি ছিল বিক্ষিপ্ত। এবার আনুষ্ঠানিকভাবে সেই আন্দোলনে যোগ দিচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ক্যারিবীয় ক্রিকেটারদের জার্সির কলারে প্রতীক হিসেবে ব্যবহার করা হবে ‘ব্ল্যাক লিভস ম্যাটার’ লেখাটি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডারই প্রথম এমন কিছুর প্রতি ইঙ্গিত করেছিলেন। মর্মান্তিক হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে চলা আন্দোলনে সমর্থন দেবে ক্যারিবীয়রাও। সেটা যে কোনও পন্থাতেই হোক। রবিবার বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, ‘আমরা মনে করি এই অবস্থায় আমাদের একাত্মতা প্রকাশ করা উচিত। একই সঙ্গে সচতেনতা বৃদ্ধিতেও সহায়তা করা উচিত।’

তিনি আরও বলেছেন শুধু ট্রফি ধরে রাখার মধ্যেই তাদের লড়াই সীমাবদ্ধ নয়, ‘আমরা ইংল্যান্ডে উইজডেন ট্রফি ধরে রাখার জন্য এসেছি। তবে একই সঙ্গে আমরা বিশ্বজুড়ে ঘটে যাওয়া ঘটনা, ন্যায়বিচার ও সাম্যের লড়াইয়ের বিষয়েও খুব সচেতন।’

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ২০টি ক্লাব ‘ব্ল্যাক লিভস ম্যাটার’ লেখাটি লোগো হিসেবে জার্সিতে ব্যবহার করেছিল। যার ডিজাইন করেছেন আলিশা হোসানাহ। তার সঙ্গী ট্রয় ডিনি আবার ওয়াটফোর্ডের অধিনায়ক। প্রিমিয়ার লিগে এমন উদ্যোগটি দেখেই পছন্দ হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের। সেটি ব্যবহারের জন্য আলিশার সঙ্গে তারা যোগাযোগও করেন। পরে আইসিসি এই প্রতীক ব্যবহারের জন্য তাদের অনুমতি দেয়।

ধারণা করা হচ্ছে, জার্সিটি প্রথমবার পরা হতে পারে চার দিনের প্রস্তুতি ম্যাচেই। যেটি ওল্ড ট্রাফোর্ডে শুরু হবে সোমবার।